মোট দেখেছে : 73
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

সারাবিশ্ব থেকে এবারের ইজতেমায় আসছেন যারা

বহুল প্রতিক্ষীত তুরাগ তীরের বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণে টঙ্গিমুখী লাখো জনতা

নিজস্ব প্রতিবেদক : বহুল প্রতিক্ষীত তুরাগ তীরের বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণে টঙ্গিমুখী লাখো জনতা। ইজতেমার বয়ান, মোনাজাত ইত্যাদি বিষয়ে জটিলতা থাকা সত্ত্বেও ইজতেমা ময়দানের দিকে ধর্মপ্রাণ মুসলমানের ঢল থেমে থাকেনি। ইতিমধ্যে ইজতেমা ময়দান ধর্মপ্রাণ মুসলিম জনতার উপস্থিতিতে মুখরিত।

ইজতেমার বয়ান ও মোনাজাত যে বা যারাই পরিচালনা করুক না কেন, এবারের ইজতেমায় আসার গুঞ্জনে ভেসে বেড়াচ্ছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় আলেম-ওলামাসহ বিশ্ব তাবলিগের শীর্ষ মুরব্বি ও শুরা সদস্যদের নাম।


এবারের ইজতেমায় সারাবিশ্বের অধিকাংশ শুরা সদস্য ও ভারতের তাবলিগের শীর্ষ মুরব্বিগণের উপস্থিত হওয়ার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। যাদের অনেকেই ইতোমধ্যেই বিশ্ব ইজতেমার মাঠে পৌছে গেছেন।


ইজতেমায় যেসব শীর্ষ মুরব্বিদের উপস্থিতির সম্ভাবনা বেশি তাদের অন্যতম হলেন-

দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের অন্যতম মুরব্বি মাওলানা আহমদ লাট, মাওলানা ইবরাহিম দেওলা,মাওলানা যুহাইরুল হাসান বিন মাওলানা জুবায়েরুল হাসান, মাওলানা আসাদুল্লাহ, মাওলানা যুয়ারুল হাসান, মুফতি শামিম, মিয়াজি মাওলানা ফুল, মুফতি শরিফ, মাওলানা জামসিদ এবং বিশ্ব বিখ্যাত আলেম ইউসুফ সালানির সন্তান মাও ইয়াকুব, ফারুক ব্যাঙ্গালার, মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা সানাউল্লাহ আলীগড়।


আরও আসবেন মাওলানা নাফিস, মুফতি আব্দুর রহিম, শায়খুল হাদিস আব্দুর রশিদ, মাওলানা আব্দুল হান্নান, মাওলানা শামসুর রহমান, মাওলানা গাজাইল, প্রফেসর আব্দুল আলিম, শায়খ ইলিয়াস (বাড়াবাকিং), শায়খ আলাউদ্দিন (মেওয়াত), মুফতি আব্দুল সাত্তার, মাওলানা ইয়াকুব, শায়েখ ইউসুফ, মিয়াজি আজমত, মুফতি শওকত প্রমুখ।


এবারের ইজতেমার বিশেষ আকর্ষণ

দ্বন্দ্বের মাঝেও বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণ করবেন মাওলানা সাদ কান্ধলভির বড় ছেলে মুফতি ইউসুফ বিন সাদ কান্ধলভি। বেশ কয়েক বছর ধরে তিনিও ইজতেমা ময়দানে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান পেশ করেন। এবারের ইজতেমায়ও তার গুরুত্বপূর্ণ বয়ান পেশ করার কথা রয়েছে। সৌদি আরবসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশের বিশ্ব তাবলিগের শুরা সদস্যরা এবারের ইজতেমায় অংশগ্রহণ করবেন।


আসছেন না তারিক জামিল!

পাকিস্তান তাবলিগের কোনো মুরব্বির এবারের ইজতেমায় অংশগ্রহণের সম্ভাবনা নেই। এমন কি তাবলিগ জামাতের অন্যতম দাঈ আল্লামা তারিক জামাল ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও বিশেষ কারণে অংশগ্রহণ করতে পারছেন না।


বাংলাদেশি আলেমদের উপস্থিতি

তাবলিগের আলেম উপদেষ্ট কমিটির সদস্য আল্লামা আশরাফ আলী, আল্লামা মাহমুদুল হাসান, আল্লামা আবদুল কুদ্দুসসহ শীর্ষ ওলামায়ে কেরাম ইজতেমার শুরু থেকেই মাঠে অবস্থান করবেন। আল্লামা শাহ আহমদ শফী শুক্রবার ইজতেমা মাঠে জুমআর নামাজ আদায় করার কথা রয়েছে। জুমআর পর থেকে দীর্ঘ সময় ধরে ইজতেমা মাঠে অবস্থানেরও কথা রয়েছে।


উল্লেখ্য যে, এবারের বিশ্ব ইজতেমা (১৫-১৮) ৪ দিন হওয়ার কথা থাকলেও মূলত আজ (১৪ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার বাদ ফজর আম বয়ানের মাধ্যমেই শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমা। বাদ ফজর ঈমান, আমল ও সময়ের গুরুত্ব তুলে ধরে মাওলানা আব্দুল মতিনের আম বয়ানের মাধ্যমে শুরু হয়েছে এবারের বিশ্ব ইজতেমা। বিশ্ব ইজতেমা ২০১৯ হয়ে ওঠুক সবার জন্য নিরাপদ শান্তি ও কল্যাণের।

আরো দেখুন

আরও সংবাদ