মোট দেখেছে : 358
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের এক স্কুল শিক্ষকের লাশ নোয়াখালী সোনাইমুরী থেকে উদ্ধার

মোস্তফা চৌধুরী

চট্রগ্রাম প্রতিনিধি(সহঃ), সৃষ্টি টিভি: 


চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার এক যুবক স্কুল শিক্ষকের মৃতদেহ নোয়াখালীর সোনাইমুরী গ্রাম থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৩ জানুয়ারি) রাত ৮ টার দিকে সোনাইমুড়ি থানার আমিনশাহ এলাকার একটি বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহতের নাম মোহাম্মদ নুর উদ্দীন(২৯)পিতাঃআবুল বাশার( ভাটিয়ারী নেওয়াজ গাজীর বাড়ী)বর্তমানে দক্ষিণ  হাদেম পাড়া(আবুল বাসারের নতুন বাড়ি)

সীতাকুন্ড,৯নং ভাটিয়ারী ইউনিয়ন,৩নং ওয়ার্ড দক্ষিন হাদেম পাড়া আবুলরের নতুন বাড়ীর নিবাসী আবুল বাসারে ৩য় পুত্র মোঃনুর উদ্দীন। গত ১২ জানুয়ারি সকাল ৯টা বাজে ঘর থেকে বের হয় এর পর থেকে তাকে তার কোনো খোজ খবর পাওয়া যাচ্ছিলোনা।  

প্রাই ১২ দিন পর ২২ জানুয়ারী সে পরিবারে মা, ভাই, সহ বেশ কয়েক জনের সাথে যোগাযোগ করে এবং পরের দিন তথা ২৩ জানুয়ারী বাড়ি ফিরে আসবে বলে জানিয়েছিলো পরিবারের সদস্যদের।

পরে ২৩ জানুয়ারী বুধবার রাত ৯টার দিকে নোয়াখালী সোনাইমুড়ী থানা থেকে তার মৃত্যু সংবাদটি পরিবারকে জানানো হয়। খবর পেয়ে তার পরিবারের লোকজন সেখানে গিয়ে নুর উদ্দীন এর লাশ শনাক্ত করে।

সোনাইমুড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুস সামাদ (পিপিএম) জানান , বুধবার রাত ৮ টার দিকে আমিনশাহ এলাকায় একটি বাসা থেকে  সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় নুর উদ্দিন নামের এক যুবকের লাশ আমরা উদ্ধার করি। ঘরটি ভেতর থেকে বন্ধ

ছিলো। সে স্থানীয় হাজ্বী শহীদ মুক্তিযুদ্ধা স্কুলে পার্টটাইম শিক্ষকের চাকরি নিয়েছিলেন। তার কাছে একটি চিরকুট পাওয়া যায় যেটিতে সে লিখেছে যে আসসালামুআলাইকুম, আমি যেই কাজটি করছি সেটি ভুল। আমি জানি আমি যেটি করতেছি সেটি অত্যন্ত পাপ।

আমার মা বাবা আত্নীয় স্বজন সকলেই আমাকে খুব ভালবাসেন সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। আমার জন্য দোয়া করবেন ইতি আপনাদের... । লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তেরর জন্য মর্গে প্রেরণ করি।

নুর উদ্দীনের ভাই সাহেব উদ্দিন এবং পিতা আবুল বশর বলেন, আমার ছেলে ১২ জানুয়ারি সকাল ৯:৩০ ঘর থেকে বের হয়ে আর বাসায় ফেরেনি। মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) রাতেও ফোনে তার সাথে আমাদের কথা হয়েছিলে।

ময়না তদন্তের রিপোর্টেরর মাধ্যমে আমার ছেলের মৃত্যুর রহস্য উন্মুচন হবে বলে আমাদের আশা।



আরো দেখুন

আরও সংবাদ