মোট দেখেছে : 190
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

রোববার রাত ১২টার পর চলবে যেসব যানবাহন

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে বিভিন্ন ধরনের যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা যানবাহনগুলো আজ রোববার রাত থেকে সারা দেশে চলাচল করবে। এর মধ্যে রয়েছে- বাস, ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রোবাস, ট্যাক্সিক্যাব, জিপ, টেম্পো, বেবি ট্যাক্সি, অটোরিকশা, ইজিবাইক, হেলিকপ্টার, ব্যক্তিগত গাড়ি, স্থানীয় পর্যায়ে যন্ত্রচালিত যানবাহন এবং লঞ্চ, ইঞ্জিনচালিত নৌযান ও স্পিডবোট। তবে মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত।

এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ২৯ ডিসেম্বর (শনিবার) মধ্যরাত ১২টা থেকে ৩০ ডিসেম্বর (রোববার) মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত এসব যান চলাচলে  নিষেধাজ্ঞা জারি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।

রোববার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে একথা জানানো হয়।

তবে নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুসারে, একাদশ নির্বাচনকে ঘিরে ২৮ ডিসেম্বর মধ্যরাত থেকে ১ জানুয়ারি পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ থাকছে। নির্বাচন কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা ও কর্মচারী, সাংবাদিক, পর্যবেক্ষক অথবা জরুরি কাজে ব্যবহৃত মোটরসাইকেল চলবে (রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমোদন সাপেক্ষে)।

তবে ২৯ ডিসেম্বর (শনিবার) মধ্যরাত ১২টা থেকে ৩০ ডিসেম্বর (রোববার) মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত চলাচল করতে পারছে- ১. জরুরি সেবাকাজে নিয়োজিত যানবাহন, ওষুধ, স্বাস্থ্য-চিকিৎসা বা অনুরূপ কাজে ব্যবহৃত দ্রব্যাদি এবং সংবাদপত্র বহনকারী সব ধরনের বাহন। ২. বিমানবন্দরে যাওয়া, বিমানবন্দর থেকে যাত্রী বা আত্মীয়স্বজনসহ নিজ বাসস্থান যাওয়া-আসা অথবা আত্মীয়স্বজনের বাসায় ফিরে যাওয়ার জন্য ব্যবহৃত যানবাহন (টিকিট বা অনুরূপ প্রমাণ সাপেক্ষে) এবং দূরপাল্লার যাত্রী বহনকারী অথবা দূরপাল্লার যাত্রী হিসেবে স্থানীয় পর্যায়ে যাতায়াতের জন্য যেকোনো পরিবহন চলবে। ৩. নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর জন্য একটি, প্রার্থীর নির্বাচনী এজেন্টের (যথাযথ নিয়োগপত্র বা পরিচয়পত্র থাকা সাপেক্ষে) জন্য একটি গাড়ি চলতে পারবে (রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমোদন ও স্টিকার প্রদর্শন সাপেক্ষে)। ৪. সাংবাদিক, পর্যবেক্ষক অথবা জরুরি কাজে ব্যবহৃত মোটরসাইকেল চলবে (রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমোদন সাপেক্ষে)। ৫. নির্বাচনকাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা ও কর্মচারীর মোটরসাইকেল চলবে (রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমোদন সাপেক্ষে)।

আজ ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৯৯ আসনে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এখন চলছে ভোট গণনা। রোববার সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত একটানা এই ভোটগ্রহণ চলে। তবে ভোটের দিন ও তার আগের রাতে সহিংসতায় এ পর্যন্ত ১৬ জন নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এবার সংসদ নির্বাচনে নিবন্ধিত ৩৯টি রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে। দীর্ঘ ১০ বছর পর মুখোমুখি হতে যাচ্ছে রাজনীতিতে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। তারা উভয়ই জোটবদ্ধভাবে ভোটে অংশ নিয়েছে।

এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৮০০ এর বেশি প্রার্থী। এর মধ্যে ৫০ জনের মতো রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী, বাকিরা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রার্থী।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সেনাবাহিনী, বিডিআর, র‌্যাব ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভোট কেন্দ্রে প্রায় ৬ লাখ ৮ হাজার ফোর্স নিয়োজিত রয়েছে। তাছাড়া সারাদেশে জেলা ও মেট্রোপলিটন পুলিশের টহল দল নিয়োজিত রয়েছে।

আরো দেখুন

আরও সংবাদ