মোট দেখেছে : 77
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

মুখ্যমন্ত্রী মমতার ধমক খেয়ে এক ঘন্টার মধ্যে মন্ত্রীত্ব থেকে ইস্তফা

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে বড়সড় ধমক খাওয়ার এক ঘন্টার মধ্যে মন্ত্রীত্ব থেকে ইস্তফা দিলেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের আবাসন ও দমকল দফতর মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়। তিনি কলকাতার মেয়রও। তবে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তিনি মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দেননি। শোনা যাচ্ছে তিনি মেয়র পদও ছাড়ছেন।


মঙ্গলবার ( ২০ নভেম্বর) দুপুরে বিধানসভার প্রশ্ন-উত্তরপর্বের বিরোধীদের কিছু প্রশ্নে বিড়ম্বনায় পড়েন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোধ্যায়। শোভন চট্টোপাধ্যায় দফতর সম্পর্কে সেই প্রশ্ন নিয়ে মমতা শোভন কে প্রশ্ন করতে রেগে যান শোভন।


-এটা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যোয়ের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন। তখন মমতা শোভনকে ধমক দেন এবং বলেন, ”তোমার সম্পর্কে অনেক অভিযোগ আসছে। তুমি কাজ ফেলে শাড়ি ও চুড়ির দোকানে ঘুরে বেড়াচ্ছো। সব খবই আমার কানে আসে। আমার মাথা গরম করো না শোভন”।


শোভন কে স্নেহের স্বরে মুখ্যমন্ত্রী ”কানন” ও তুই করে ডাকতেন। তবে আজ রেগে তিনি বার বারই ”শোভন” বলে ডাকেন করেন। এমন কি তুই না বলে তুমি বলেও সম্বোধন করেন।


মমতার মুখে ধমক খেয়ে সন্ধ্যার আগেই নবান্নের নিজের দফতরে পৌঁছান এবং সেখানে গিয়েই মুখ্যমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল সেক্টেটারি গৌতম সান্ন্যালকে ইস্তফাপত্র পাঠান।


গৌতম স্যান্নাল বিষয়টি জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। মুখ্যমন্ত্রীর শোভনের ইস্তফা গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়ে সেটা রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠির কাছে পাঠানো হয়।


প্রসঙ্গত, বেশ কয়েক মাস ধরেই স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেন মামলায় জড়িয়ে পড়েছেন মেয়র তথা মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়। বৈশালী চট্টোপাধ্যায় নামে এক নারীর সঙ্গেও তার ঘনিষ্ট সম্পর্কের কথা পত্রপত্রিকার বহুবার প্রকাশিত হয়েছে।


এমন কি বিষয়টি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আগেও কয়েকবার মেয়রকে ধমক দিয়েছিলেন।


ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বেশ অশান্তির মধ্যে ছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। সেকারণে তার দুটি দফতরে সময় দিতে পারছিলেন না।


শুধু তাই নয়, গত তিন মাসের কলকাতায় ছোটবড় বেশ কয়েকটি আগুনের ঘটনায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ছিলেন।

আরো দেখুন

আরও সংবাদ